1. info@businessstdiobd.top : admin :
বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন




অনলাইন কাস্টমস নিলামে অংশগ্রহণ করতে পারবে যে কেউ!

সস্তায় পণ্য কিনতে অনেকেরই কাস্টমসের নিলামে অংশ নেয়ার আকাংখা থাকে। কিন্তু কাস্টম হাউসে তালিকাভুক্ত না হওয়ার কারণে সাধারণ মানুষ নিলামে অংশ নিতে পারে না। আবার স্থানীয় এজেন্টের মাধ্যমে নিলামে অংশ নিলেও ঝামেলা আছে। শক্তিশালী সিন্ডিকেট ও পেশীশক্তির রোষানলে পড়তে হয়।

এ সিন্ডিকেটের কারণে সরকার রাজস্ব তো দূরের কথা, নিলাম পণ্যের সঠিক দামও পায় না। তাই নিলাম প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করতে ও পণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) অনলাইনে নিলাম করার উদ্যোগ নিয়েছে। রাজধানীর একটি হোটেলে নিলাম সফটওয়্যারের উদ্বোধন করবেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।

ফলে ঘরে বসে কাস্টমসের ওয়েবসাইটে (www.bangladeshcustoms.gov.bd) প্রবেশ করে যে কেউ দেশের যে কোনো স্থান থেকে নিলামে অংশ নিতে পারবে। এছাড়া সব ধরনের চোরাচালানের তথ্য শুল্ক গোয়েন্দাকে জানাতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের জন্য হটলাইন নম্বর চালু করা হচ্ছে।

পাশাপাশি কাস্টমসের ওয়েবসাইটে ন্যাশনাল ইনকোয়ারি পয়েন্ট (এনইপি) নামের একটি অপশন চালু করা হচ্ছে, এখান থেকে সাধারণ মানুষ কাস্টমস সম্পর্কিত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর পাবেন। সূত্র জানায়, আমদানি পণ্য যথাসময়ে খালাস না নেয়ায় বন্দরগুলোতে প্রায়ই কন্টেইনার জট লাগে। দিনের পর দিন কন্টেইনার পড়ে থাকলেও এসব থেকে এনবিআর শুল্ক পায় না। আর বন্দর কর্তৃপক্ষও চার্জ পায় না।

এ ধরনের পণ্য নিলামে তোলা হয়। কিন্তু উপযুক্ত দাম না পাওয়া কারণে সেগুলো বিক্রি করা হয় না। প্রতিটি বন্দরের সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট নিলাম নিয়ন্ত্রণ করে। অনেক সাধারণ মানুষের উপযুক্ত দাম দিয়ে পণ্য কেনার ইচ্ছা থাকলেও সিন্ডিকেটের ভয়ে নিলামে অংশ নিতে পারে না। পুরো নিলাম প্রক্রিয়াটি অনলাইন করায় পণ্যের উপযুক্ত দাম পাওয়া যাবে।

এ প্রক্রিয়ায় নিলামকারীর গোপনীয়তা রক্ষাও করা হবে। তবে নিলামে অংশ নিতে চাইলে অংশগ্রহণকারীদের কিছু শর্ত মানতে হবে। এগুলো নিলাম আদেশে উল্লেখ থাকবে। এ নিলাম সফটওয়্যার নির্মাণে ইউএসএইড আর্থিক সহায়তা দিয়েছে। তবে নিলামের জন্য আলাদা কোনো সফটওয়্যার তৈরি করা হয়নি।

বাংলাদেশ কাস্টমসের ওয়েবসাইটেই নিলাম সংক্রান্ত সফটওয়্যারের লিংক পাওয়া যাবে। অর্থাৎ যারা নিলামে অংশ নিতে চান, তাদের বাংলাদেশ কাস্টমসের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিয়ে লগইন করতে হবে। এনবিআরের কর্মকর্তারা জানান, বাণিজ্য পদ্ধতি সহজীকরণ, আমদানি-রফতানির ব্যয় কমানো, নিলাম প্রক্রিয়া দ্রুত ও সহজ করার লক্ষ্যে অনলাইন নিলাম চালু করা হচ্ছে।

কাস্টমসের আধুনিকায়নের অংশ হিসেবে নতুন সফটওয়্যার ও হটলাইন চালুর উদ্যোগ নিয়েছে এনবিআর। নিলাম প্রক্রিয়া অনলাইনে আনলে এ খাতে দুর্নীতির অভিযোগ বন্ধ হয়ে যাবে। আর হটলাইন ও এনইপি চালুর মাধ্যমে সেবাগ্রহীতাদের সেবাপ্রাপ্তি অনেক বেশি সহজতর হবে।

জানতে চাইলে এনবিআরের দ্বিতীয় সচিব রিয়াদুল ইসলাম বলেন, কাস্টমসকে আধুনিকায়নের অংশ হিসেবে নিলাম প্রক্রিয়ার অনলাইন করা হচ্ছে। এতে সরকার ও জনসাধারণ উভয়েই উপকৃত হবে। শিগগিরই নিলাম সংক্রান্ত আদেশ সংশোধন করা হবে। ওই আদেশেই নিলামে অংশ নেয়ার যোগ্যতা উল্লেখ করা হবে।

চোরাচালানের তথ্য শুল্ক গোয়েন্দাকে দিন : চোরাচালান রোধে শুল্ক গোয়েন্দাকে আরও সক্রিয় করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে একটি হটলাইন নম্বর (৪৮৩২১১০০) চালু করা হচ্ছে। এ নম্বরে ফোন দিয়ে যে কোনো ধরনের চোরাচালানের তথ্য দেয়া যাবে। পরে অভিযোগ যাচাই-বাছাই শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে তথ্যদাতার গোপনীয়তা রক্ষা করা হবে। এতে চোরাচালান অনেকাংশেই রোধ করা সম্ভব হবে বলে মনে করছে এনবিআর।

প্রশ্নের উত্তর দেবে এনবিআর : কাস্টমস সম্পর্কিত সব ধরনের প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে ন্যাশনাল ইনকোয়ারি পয়েন্টে (এনইপি)। ব্যাগেজ রুলসের আওতায় একজন ব্যক্তি কী পরিমাণ জিনিসপত্র আনতে পারবেন তা জানা যাবে এ তথ্য পয়েন্ট থেকে। পাশাপাশি কাস্টমসের ক্লিয়ারেন্স, আমদানিযোগ্য পণ্য তালিকা, পণ্যের এইচএস কোড, আমদানি প্রক্রিয়াসহ বিভিন্ন তথ্যও জানা যাবে এ তথ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, প্রবাসীরা বাংলাদেশে আসার সময় কোন কোন পণ্য শুল্ক ছাড়া আনতে পারবেন তা জানতে চান। অনেকে কাস্টমসের জটিল প্রজ্ঞাপনও বোঝেন না। এ ধরনের ব্যক্তিরা এনইপির মাধ্যমে উত্তর জানতে পারেন। প্রায় ১৫০ প্রশ্নের উত্তর এনইপিতে দেয়া আছে।

যদি বাছাইকৃত প্রশ্নের বাইরে কারও জিজ্ঞাসা থাকে তাহলে ওই ব্যক্তির প্রশ্ন গ্রহণ করা হবে এবং পরবর্তীতে ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তাকে প্রশ্নের উত্তর জানিয়ে দেয়া হবে। সূত্র জানায়, এনইপির মাধ্যমে সাধারণ মানুষ যাতে দ্রুত উত্তর পেতে পারে, সেজন্য একটি টিম গঠন করা হয়েছে। এ টিমে একজন সদস্য, একজন সুপারভাইজার ও একজন অফিসার নিয়োগ দেয়া হবে। ইতিমধ্যেই এ সংক্রান্ত একটি স্থায়ী আদেশ জারি করা হয়েছে। তথ্যসূত্র: যুগান্তর ডটকম।




আরো পড়ুন




© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD