1. info@businessstdiobd.top : admin :
শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

ঢাকাতেই কাশ্মিরী বিরিয়ানী খেতে চাইলে!

বিরিয়ানি শুরুর দিকে ছিল শুধুই সম্ভ্রান্ত মুসলিমদের খাবার। তবে ক্রমেই এটি উপমহাদেশের ঐতিহ্য হয়ে উঠেছে। তাই ভোজনরসিকদের চাহিদা মেটাতে ঢাকার অলিগলিতেও গড়ে উঠেছে নানা ধরনের বিরিয়ানির দোকান। বলা হয় হায়দরাবাদ ও কাশ্মীর অঞ্চলের বিরিয়ানি স্বাদে গন্ধে উপমহাদেশের সেরা।

সে স্বাদ পেতে এখন আর ভারত যেতে হয় না ভোজন রসিকদের। এই যেমন রাজধানীর মিরপুরেই রয়েছে ইন্ডিয়ান কাশ্মিরী বিরিয়ানি হাউজের পাঁচটি শাখা। একটি শাখা দিয়ে শুরু হলেও চাহিদার কারণে চার বছরের মধ্যেই গড়েছে আরও চারটি শাখা। রান্নার বৈচিত্র্য, স্বাদ এবং স্বাস্থ্যকর পরিবেশের কারণে ভোজনবিলাসী মানুষের কাছে কাশ্মিরী বিরিয়ানি এখন বেশ জনপ্রিয়।

সুযোগ পেলে আপনি ঘুরে আসতে পারেন ইন্ডিয়ান কাশ্মিরী বিরিয়ানি হাউজ থেকে। কাশ্মিরী বিরিয়ানি হাউজের স্বত্বাধিকারী ওবায়দুর রহমান শ্যামল বলেন, বিরিয়ানি খেতে ভালোবাসে সবাই। কিন্তু কাশ্মীরের আসল সেই বিরিয়ানির স্বাদ পেতে এখন সবসময় তো ভারত যাওয়া যাবে না। তাই নিজ উদ্যোগেই শুরু করেছিলাম।

কাশ্মিরী বিরিয়ানির সবচেয়ে নামকরা মেনু হলো বিফ চাপ পোলাও। এছাড়া খাসির কাচ্চি ও আস্ত মোরগ পোলাও দারুণ ভাবে সমাদৃত। নিয়মিত সেবার পাশাপাশি কাশ্মিরী বিরিয়ানি থেকে পাওয়া যায় হোম ডেলিভারিও। কাশ্মিরী বিরিয়ানি হাউজ সম্পর্কে আরো জানতে পারেন এই ঠিকানায় – kashmiribiriani.com

বাসায় বসে কাশ্মিরী বিরিয়ানি তৈরী করতে চাইলে: উপকরণ- পোলাওর চাল রান্নার জন্য যা যা লাগবে বাসমতি চাল/পোলাওর চাল ২ কাপ। (চালটা ধুয়ে কুসুম গরম পানি দিয়ে ১০/১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখবেন) পিঁয়াজ কুচি– ১ কাপ ঘি- ১/৩ কাপ মুরগি রান্নার জন্য যা যা লাগবে মুরগি ১ টি হাফ কেজির একটু বেশী (পিস করে নেবেন)

তেল- ১/৩ কাপ পিঁয়াজ বাটা -২ টে চামচ পিঁয়াজ কুঁচি -১/৩ কাপ আদা বাটা-১ চা চামচ রসুন বাটা- ১চা চামচ চিংড়ী মাছ – ১/৩ কাপ আলু কিউব করে কাটা – ১ কাপ গাজর গ্রেট করা – ১ কাপ টক দই – ১/৩ কাপ ধনে গুঁড়া – ২টে চামচ জিরা গুঁড়া- ১ চা চামচ লবণ স্বাদ মতো টমাটো সস – ১ টে চামচ পাকা তেঁতুল – ১চা চামচ ।(কোন আচার ব্যবহার করা যাবে না) গুঁড়ো দুধ ১ টে চামচ লং- ৩/৪ টি এলাচ- ৩/৪ টি দারচিনি- ২ টুকরা তেজপাতা – ২/৩ টি

প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে মুরগি ধুয়ে সামান্য আদা, রসুন বাটা, লবণ,টক দই আর ১/৩ কাপ মতো পানি দিয়ে মুরগি সিদ্ধ করতে দিতে হবে। সিদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে রাখুন। যদি সিদ্ধ হওয়ার পর কিছু পানি রয়ে যায় তা ফেলে দিবেন না, রান্নাতে দরকার পড়বে। এবার চিংড়ী গুলো টমেটো সস আর সামান্য পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। পানি একদম শুকিয়ে ফেলুন।

এবার আলু গুলো সামান্য তেলে স্বাদ মতো লবণ, লাল মরিচ গুঁড়া, ১ চিমটি হলুদ গুঁড়া, ধনে গুঁড়া দিয়ে অল্প আঁচে ভেজে নিন। এখন সিদ্ধ করা মুরগি রান্না করতে হবে। প্রথমে পিঁয়াজ ভেঁজা হলে তাতে একে একে ধনে গুঁড়া,লবণ, জিরা গুঁড়া,গরম মশলা দিয়ে মাংস কষিয়ে নিন। কষানো হলে তেঁতুল দিন।

দরকার পরলে সামান্য পানি দিতে পারেন।মুরগির ঝোল মাখা হয়ে আসলে পরিমাণ মতো লবণ দিন। আর শুকনো দুধ দিয়ে দিন। খুব বেশি ঝোল রাখবেন না। এবার পোলাও রান্না করে নিন । চুলায় তেল গরম হলে পিঁয়াজ ভেজে তাতে চাল পানি ঝরিয়ে দিয়ে দিন, সাথে সামান্য লবণ দিন। মনে রাখবেন লবণ যেন বেশি না হয়ে যায়।

২/৩ মিনিট চালটা কষিয়ে গাজর কুচি দিয়ে দিন। আরো ১/২ মিমিনিট আবার কষান। চালে হাল্কা কুসুম পানি দিন। ২কাপ চালে মোটামুটি আড়াই কাপ মত পানি লাগবে। পানিটা চালের পরিমাণ অনুযায়ী দেখে দেবেন। চাল মোটামুটি সিদ্ধ হয়ে এলে উপর থেকে কিছু চাল নিয়ে নিন। এবার কিছু আলু দিন চালের মাঝে।

সাথে রান্না করা মুরগির মাংস দিন অর্ধেকটা। এর উপর বাকি চাল দিয়ে বাকি আলু আর মাংস দিয়ে অল্প আঁচে ৩০/৪০ মিনিট চুলায় দমে রাখুন। হয়ে এলে নামিয়ে পরিবেশনেরআগে চালটা উপর নিচে করে মিক্স করে নিন। ব্যস হয়ে গেলো মজাদার কাশ্মীরি বিরিয়ানি।

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD