1. info@businessstdiobd.top : admin :
শুক্রবার, ০৬ অগাস্ট ২০২১, ০২:২২ পূর্বাহ্ন

বাড়ির ছাদে বৃষ্টির পানি জমলে কিংবা চুয়ে পড়লে!

বর্ষা শুরু হওয়ার পর বাড়ির ছাদে বৃষ্টির পানি জমে থাকার কারণে ছাদ চুয়ে পানি ঘরের মধ্যে ফোঁটায় ফোঁটায় পড়ছে। ভাড়াটের অভিযোগ শুনতে শুনতে অতিষ্ঠ হয়ে গেছেন বাড়িওয়ালা শরীফ সাহেব বাড়ি তৈরির সময় ছাদের কাজে কিছু ত্রুটি রয়ে গেছে। এটা তখন ধরা পড়েনি। ছাদে পানি জমে থাকার কারণে পিচ্ছিল শ্যাওলা হয়ে যায়। যে কারণে ছাদে যেতে ভয় পান অনেকেই। কারণ এর মধ্যেই কয়েকজন পা পিছলে পড়ে ব্যথা পেয়েছেন।

গরম এবং শীতকালে বাড়ির ছাদে যাওয়ার মজাই আলাদা। গরমে অতিষ্ঠ হয়ে হাওয়া খেতে সবাই ছাদে যান কম বেশি। শীতে রোদ পোহাতে ছাদে যাওয়া চাই অনেকের বর্ষায় বৃষ্টির পর বাড়ির ছাদের যাওয়ার মজাটা অন্যরকম। তাই অনেকেই বৃষ্টির পরে তো বটেই, অন্য সময় বাড়ির ছাদে ঘুরতে যান। কিন্তু বর্ষার এ সময়ে আপনার বাড়ির প্রিয় ছাদটি বৃষ্টির পানিতে নোংরা হয়ে আছে কি না খেয়াল করেছেন? যদি বৃষ্টির পানি জমে বাড়ির ছাদ নোংরা, পিচ্ছিল, স্যাঁতসেঁতে হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে চরম অস্বস্তিতে পড়তে হতে পারে। ছাদে যদি পানি জমে থাকে তবে মশাসহ নানা ধরনের রোগ জীবাণুতে ভরে উঠতে পারে আপনার প্রিয় ছাদটি তাই এ সময়ে ছাদের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ভীষণ জরুরী।

বর্ষার সময়ে ছাদে বৃষ্টির পানি জমার কারণে আপনার প্রিয় বাড়িটির অনেক বড় ক্ষতি হতে পারে। এ বিষয়ে অনেক বাড়ির মালিক, তেমন গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করেন না। বাড়ি তৈরির সময়ে এ বিষয়ে একটু সচেতন হলেই বাড়ির ছাদে বৃষ্টির পানি জমার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়।

ছাদে পানি জমার কারণগুলো হলো : ছাদে ঢালু না থাকার কারণে পানি জমে। ছাদ অসমতল হলে পানি জমতে পারে। নির্মাতার সময় অসচেতন থাকার কারণে অনেক সময় ছাদের বিভিন্ন স্থান গর্তের কারণে পানি জমে। ছাদ থেকে পানি পড়ার জায়গায় বাধা পেলে অনেক সময় পানি জমে থাকে। পানি নিচে পড়ার পাইপের সামনে বা মুখে গাছের পাতা বা অন্য কিছু জমে থাকার কারণে পানি জমে। পাইপের মধ্যে পাতা বা অন্য কিছু আটকে থাকলে পানি নিচে পড়তে অসুবিধা হওয়ার কারণে অনেক সময় পানি জমে থাকে। ছাদ থেকে পানি পড়ার পাইপের আয়তন তুলনামূলক কম বা চিকন হওয়ার কারণে মষুলধারে বৃষ্টির পানি নিচে পড়তে অনেক সময় লাগে, ফলে ছাদে পানি জমে। ছাদে পানি জমে থাকার কারণে বিল্ডিংয়ের অনেক ধরনের ক্ষতি হতে পারে।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো : পানি জমার কারণে ছাদের স্থায়িত্ব কমে যেতে পারে। ছাদে পানি জমার কারণে সব সময়ে স্যাঁতসেঁতে থাকে। এর ফলে ছাদে হাঁটাচলা করতে অনেক সমস্যা হয়। বেশি সময় ধরে একটানা অনেকদিন ছাদে পানি জমে থাকলে কংক্রিটের ছিদ্র দিয়ে পানি নিচে চলে আসতে পারে। ছাদের নিচের তলায় ওপরে পানি জমার কারণে সব সময় ভেজা ভেজা ভাব থাকে। কংক্রিটের ছিদ্র দিয়ে পানি পড়ে ঘরের ফার্নিচার, বই খাতা কাপড় চোপড় ভিজে যেতে পারে। ছাদে পানি বেশি জমে থাকলে সিঁড়ি দিয়ে পানি নিচে বা থাকার রুমে চলে যেতে পারে। বেশি সময় পানি জমে থাকার কারণে ডেঙ্গুসহ জীবাণুবাহিত রোগ হতে পারে।

আপনি যদি সচেতন জন তাহলে বাড়ির ছাদে পানি জমা সমস্যার সমাধান করতে পারেন। এ জন্য কিছুটা ঢালু করে ছাদ নির্মাণ করতে হবে। ছাদ যেদিক ঢালু করবেন সেদিকে যেন পানি পড়ার যথাযথ ব্যবস্থা থাকে সেদিকে খেয়াল রাখবেন ছাদ থেকে পানি পড়ার পাইপ কিছুদিন পর পর পরিষ্কার করতে হবে। পাইপের মুখে বা ছাদে যেন পাতা বা অন্য কিছু জমে না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। ছাদে গর্ত থাকলে সেগুলো মেরামত করে দিতে হবে।

বাড়ি নির্মাণের সময় ঠিকমতো কমপ্যাকশন জমাট করতে হবে। ঠিকমতো কমপ্যাকশন না হলে ছাদের মধ্যে অনেক ছিদ্র থেকে যায়। কেমিক্যাল বা টালি দিয়ে ছাদ মেরামত করে দিতে হবে। জলছাদ তৈরি করতে পারেন। এতে গ্রীষ্মের তাপ থেকে বাঁচা যাবে এবং ছাদে পানি জমার ভয় থাকবে না সবচেয়ে ভাল হয় যদি আপনার বাড়ির তলার সংখ্যা না বৃদ্ধি করেন, ছাদ সমতলভাবে তৈরি না করেন। টালি বা অন্য কিছু দিয়ে ওপরের দিকে সরু করে দুই দিকে ঢালু করে তৈরি করেন। বাড়ি বানানোর সময় একটু সচেতন হতে হবে। ইমারত নির্মাণ বিধিমালা অনুযায়ী বাড়ি নির্মাণ করতে হবে।

আপনি যদি বাড়ির মালিক হন তাহলে প্রতিনিয়ত নানা সমস্যার মোকাবেলা করতে হবে। এ নিয়ে অযথা দুশ্চিন্তা করবেন না। যদি আগে থেকেই সচেতন থাকেন তাহলে হয়ত আপনাকে তেমন সমস্যায় পড়তে হবে না।

অতএব বাড়িতে পানির পাম্প লাগানোর সময় মান ও গুণাগুণ দেখে যাচাই করে কিনুন। প্রয়োজনে একটু বেশি দাম দিয়ে উন্নতমানের পানির পাম্প কিনুন। বাড়ির ছাদ নিয়ে সমস্যা থাকলে ইঞ্জিনিয়ারের সঙ্গে আলোচনা করুন। ইঞ্জিনিয়ারের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সংস্কার ও মেরামত করে নিন। পানির পাম্প ব্যবহারে সতর্ক থাকুন, ছাদে যাতে পানি জমে না থাকতে পারে সেদিকে নজর দিন।

তথ্যসূত্র: দৈনিক জনকন্ঠ।

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD