1. info@businessstdiobd.top : admin :
  2. 123@abc.com : itsme :
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন

যে ৬ কারণে উচ্চশিক্ষার জন্য মাল্টা যাবেন

বিশ্বের ক্ষুদ্রতম দেশগুলোর একটি মাল্টা। ভূমধ্যসাগরে অবস্থিত দ্বীপপুঞ্জ এটি। মাল্টার ৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে ইতালি, পূর্বের তিউনিসিয়ার দূরত্ব ২৮৪ কিলোমিটার, উত্তরে লিবিয়া, দূরত্ব ৩৩৩। ভূমধ্যসাগরে এর অবস্থানের জন্য ঐতিহাসিকভাবে এর কৌশলগত গুরুত্ব অপরিসীম। এর মোট আয়তন ৩১৬ বর্গ কিলোমিটার।

মাত্র চার লক্ষ জনসংখ্যার এই দেশটি পাঁচটি দ্বীপ নিয়ে গঠিত। পাঁচটি দ্বীপের মধ্যে মূলত তিনটি বড় দ্বীপ- মাল্টা, গোজো ও কোমিনোতেই জনবসতি আছে। মাল্টাতে বাস করার অনুমতি পাওয়া বেশ সহজ। তাই কম জনসংখ্যার দক্ষিণ ইউরোপের এই দ্বীপ দেশটিতে অনেক অভিবাসী সহজেই প্রবেশ করছে।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর মাল্টাতে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষাও অনেক ভালো। ২০১৮ সালের দর্শনীয় সেরা ১০টি স্থানের মধ্যে একটি হলো মাল্টার রাজধানী ভালেট্টা। আকারে ছোট হলেও মাল্টা কিন্তু সংস্কৃতি ও ইতিহাসে সমৃদ্ধ। এছাড়াও মাল্টা পর্যটনের জন্য বিশেষভাবে বিখ্যাত। এর উষ্ণ আবহাওয়া, ঐতিহাসিক নানা স্থাপনা, অসাধারণ স্থাপত্যকলা এবং ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যসহ বিনোদনের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থাকার কারণে পর্যটকদের জন্য দেশটি অত্যন্ত আকর্ষণীয় স্থান।

অর্থনৈতিক দিক দিয়েও বেশ সমৃদ্ধ দেশ মাল্টা। তুলা ও তামাক দেশটির প্রধান রপ্তানিযোগ্য পণ্য। মাল্টায় পড়াশোনা, পরিবহণ ও জীবন যাত্রার খরচ সবকিছুই ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় কম। তাই কম খরচে উন্নত মানের শিক্ষা লাভের আশায় মাল্টা ক্রমেই বিদেশি শিক্ষার্থীদের নিকট জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

মাল্টার সরকারি ভাষা মাল্টিজ এবং ইংরেজি। এদেশের পড়াশোনার মাধ্যমও ইংরেজি। এখানের ৮০% বাসিন্দা ইংরেজি ভাষায় কথা বলে, বাকিরা ইতালি ও ফরাসি ভাষায় কথা বলে। তাই আপনি সে দেশের নাগরিকদের সাথেই সহজেই আপনি মনের ভাব বিনিময় করতে পারবেন। ইউরোপীয় অন্যান্য দেশের মতো মাল্টার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতেও অনার্স মাস্টার্স এবং পিএইচডি পর্যায়ে বিভিন্ন কোর্স রয়েছে।

এখানে অনার্স কোর্সের মেয়াদ তিন থেকে চার বছর, মাস্টার্স কোর্স এক থেকে দুই বছর এবং পিএইচডি তিন থেকে চার বছর মেয়াদি হয়ে থাকে। এছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন ডিপ্লোমা ও শর্ট কোর্স। মাল্টার কয়েকটি উল্লেখযোগ্য বিশ্ববিদ্যালয় হলো, ইউনিভার্সিটি অব মাল্টা। মাল্টা কলেজ অব আর্ট, সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি। ইন্সটিটিউট অব ট্যুরিজম স্টাডিজ মাল্টা। আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব মাল্টা ।

যে সব বিষয় পড়ানো হয়: আর্টস, সমাজবিজ্ঞান, ইতিহাস, দর্শন, ভূগোল, ইঞ্জিনিয়ারিং, ম্যানেজম্যান্ট, ল, মিডিয়া, মিউজিক, হেলথ সায়েন্স, অ্যাভিয়েশন, অ্যাকাউট্যান্সি, মেডিসিন এন্ড সার্জারি, এরোস্পেস টেকনোলজি, এইচআরএম ইত্যাদি সহ আরো নানা বিষয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করার সুযোগ রয়েছে।

১. উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থা: মাল্টার শিক্ষাব্যবস্থা এবং ডিগ্রি আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন। এদেশের বেশিরভাগ কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় মাল্টা দ্বীপের উত্তর-পূর্ব উপকূলে রাজধানী ভালেট্টার চারপাশে অবস্থিত। মাল্টাতে ৮টির বেশি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রত্যেক বছর কয়েক হাজার শিক্ষার্থী পড়াশোনার জন্য মাল্টা এসে থাকেন।

মাল্টার সবচেয়ে বড় সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে ইউনিভার্সিটি অব মাল্টা। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে মোট ১১,০০০ শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছেন, যার মধ্যে ৭০০ জন বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছেন। ১৯৫২ সালে স্থাপিত ইউনিভার্সিটি অব মাল্টা বিশ্বের প্রাচীনতম এবং সবচেয়ে সম্মানিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি। এছাড়াও মাল্টার প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন ধরণের ক্লাব যেমন- সঙ্গীত, নাচ ও সাংস্কৃতিক ক্লাব রয়েছে। আপনি চাইলে এসব ক্লাবের সাথে যুক্ত হতে পারেন।

২. কাজের সুযোগ: মাল্টাতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা কাজের অনুমতি দেয়া হয়ে থাকে। তবে গ্রীষ্মকালে তিনমাস বন্ধ থাকে, তখন চাইলে ফুল টাইম কাজ করতে পারবেন।

৩. আবাসনের সুবিধা: মাল্টার শিক্ষার্থীদের জন্য হোস্টেলের ব্যবস্থা রয়েছে। ভালোমানের হোস্টেলে ভাড়া মাসিক ৯০০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়াও আপনি চাইলে আলাদা বাসা বা ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে থাকতে পারেন। এক্ষেত্রে বাসা ভাড়া কতো হবে তা নির্ভর করবে, বাসাটি কোথায় অবস্থিত এবং বাসার আয়তনের উপর। বাসা ভাড়া ২০,০০০ থেকে শুরু করে ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

৪. নিরাপদ দেশ: সম্প্রতি নেটওয়ার্ক ইন্টারন্যাশনস নামক একটি প্রতিষ্ঠান ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষার বিষয়ে প্রবাসীদের উপর একটি জরিপ পরিচালনা করেছে। জরিপ পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে ১৯১টি দেশে বসবাসরত ১৭৪ জাতিগোষ্ঠীর ১৪ হাজার ৩০০ জন প্রবাসীর কাছে বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়। তার মধ্যে একটি প্রশ্ন ছিল, ‘ব্যক্তিগত এবং আর্থিক নিরাপত্তা ও সুরক্ষার ক্ষেত্রে কোন দেশকে তারা সবচেয়ে নিরাপদ মনে করেন।‘ জরিপের ফল অনুসারে, তারা প্রবাসীদের কাছে শীর্ষ ১১টি নিরাপদ দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে। এ তালিকার পাঁচ নম্বর স্থানে রয়েছে মাল্টা।

৫. আবহাওয়া: দক্ষিণ ইতালি এবং গ্রিসসহ দক্ষিণের ভূমধ্যসাগর জুড়ে মাল্টার আবহাওয়া প্রায় একই রকম। গ্রীষ্মকাল সাধারণত গরম এবং শুষ্ক। তবে মাল্টার শীতকাল সংক্ষিপ্ত এবং ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো এত বেশি ঠাণ্ডা পড়ে না। এদেশের আবহাওয়া বেশ স্থিতিশীল, যদিও বাতাসের বেগ কিছুটা শক্তিশালী। এমন আবহাওয়াতে বিদেশি শিক্ষার্থীরা সহজেই খাপ খাইয়ে নিতে পারবে।

৬. ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ: ২০০৪ সাল থেকে মাল্টা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সদস্য। মাল্টাতে পড়াশোনা করার সুযোগে আপনি অতি অল্প খরচে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মোট ২৮টি রাজ্য ঘুরে আসতে পারবেন। এছাড়াও রোম, মিলান, প্যারিস, মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, ইস্তানবুল এবং এথেন্সের মতো গুরুত্বপূর্ণ ইউরোপীয় শহরগুলো মাল্টা থেকে মাত্র কয়েক ঘণ্টা দূরে। চাইলেই বন্ধুদের নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন পার্শ্ববর্তী দেশগুলো।

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD