1. info@businessstdiobd.top : admin :
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন

সিদ্দিক বাজার পাইকারী সেনেটারি মার্কেট!

ঢাকার সেনেটারি মার্কেটগুলোর মধ্য সিদ্দিকবাজার মার্কেট অন্যতম। এখানে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সেনেটারি সামগ্রী এবং বাথরুম ফিটিংস পাইকারী এবং খুচরা বিক্রয় করা হয়।

অবস্থান ও ঠিকানা: গোলাপশাহ মাজার থেকে গুলিস্তান বিআরটিসি বাস সার্ভিস কাউন্টার, জুতার মার্কেট এবং সুন্দরবন স্কয়ার ইলেক্ট্রনিক্স মার্কেটের মোড় পেরিয়ে সুরিটোলা স্কুল বা বংশাল যাওয়ার পথে এই মার্কেটটি অবস্থিত।

প্রাপ্ত পণ্যসমূহ: এই মার্কেটে সব ধরনের জিআই, সিআই, ইউপিভিসি, পাইপ এবং ফিটিংস, দেশী ও বিদেশী বাথরুম সামগ্রী, মেটাল সামগ্রী যেমন বৈদ্যূতিক পাম্প, মোটর, টাইলস, সিরামিক প্যান, বেসিন, কাঁচের বেসিন, ফেন্সী সাগ্রী, বিআইএসএফ প্যান, বেসিন কমোড, লোডাউন ব্রাশ, টিউবওয়েল, লোডাউন, আরএকে স্যানিটারী, ঢাকা সেনেটারি সামগ্রী, হাতিম পাইপস পাইকারী এবং খুচরা বিক্রয় করা হয়।

মূল্য পরিশোধ পদ্ধতি: এখানে সেনেটারী সামগ্রী এবং বাথরুম সামগ্রী পাইকারী এবং খুচরা বিক্রয় করা হয়। পাইকারী বিক্রেতাগন তাদের ক্রেতা বা গ্রাহকের সাথে বাকীতে, একাউন্ট পেয়ি চেকে এবং নগদে পণ্য বিক্রয় করে থাকে। কারণ ক্রেতাগন সারা বছর ধরে ঐ একই বিক্রেতার নিকট থেকে পাইকারী হারে পন্য ক্রয় করে থাকে। পাইকারী হারে পন্য কিনলে একটি বিশেষ মূল্য ছাড় পাওয়া যায়। কাজেই এখানে বাকী এবং চেকে উভয় পদ্ধিতিতে মূল্য পরিশোধ করা হয়। বিশেষ করে যারা খুচরা বিক্রেতাগণ নগদ টাকায় পণ্য বিক্রয় করে থাকে। তারা বাকীতে বা একাউন্ট পেয়ি চেকে পন্য বিক্রয় করে না।

সার্ভিসিংয়ের ব্যবস্থা: কোন পন্য ব্যবহার করতে গিয়ে নষ্ট হয়ে গেলে এই মার্কেটে সার্ভিসিংয়ের মিস্ত্রি পাওয়া যায়। তবে মিস্ত্রির নির্দিষ্ট কোন দোকান নেই। যে কোন সেনেটারি দোকানে গিয়ে সেখানে কর্মরত কোন ব্যক্তিকে জিজ্ঞেস করলে মিস্ত্রী কোথায় পাওয়া যাবে বা সে ডেকে নিয়ে আসবে বা নিজেদেরই মিস্ত্রী দ্বারা সার্ভিসিং করে দেবে। সার্ভিসিং চার্জ নির্ধারন করে নিতে হয়। সার্ভিসিং চার্জ সাধারনত ছোট খাট কাজের জন্য ১৬০ থেকে ২০০ টাকা এবং বড় সমস্যার জন্য ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

পণ্য পরিবহন: পণ্য পরিবহনের বিষয়টি ক্রেতাকেই নির্ধারন করতে হয়। মার্কেটের পাশেই অনেক ভ্যানগাড়ী পাওয়া যায়। সেখান থেকে ভাড়া দামাদামি করে ভ্যান নিয়ে আসতে হয়। অথবা বিক্রেতা পরিচিত ভ্যানগাড়ী ডেকে ড্রাইভারের সাথে ভাড়া চুকিয়ে পন্য পরিবহন করতে হয়। বিক্রেতা পন্য পরিবহন সুবিধা দেয় না। অনেকক্ষেত্রে ভ্যানভাড়া বিলের সাথে যুক্ত করে দেওয়া হয়।

পণ্য পরিবহনে পণ্য নষ্ট বা ভেঙ্গে গেলে: বিক্রেতা নিজ দায়িত্বে পন্য পৌছাঁনোর দায়িত্ব নিলে সেক্ষেত্রে পণ্য গন্তব্যে পৌছানো পর্যন্ত দায়িত্ব বিক্রেতার। সেক্ষেত্রে পণ্য নষ্ট বা ভেঙ্গে গেলে তা পরিবর্তন করে দেওয়া হয়। অন্যথায় ক্রেতা নিজ দায়িত্বে পন্য পরিবহন করলে, পন্য পরিবহন করার সময় পণ্য নষ্ট বা ভেঙ্গে গেলে তার দায় একমাত্র ক্রেতার উপর বর্তাবে।

টয়লেট ব্যবস্থা: এই মার্কেটে টয়লেট ব্যবস্থা রয়েছে। মার্কেটভেদে টয়লেটের সংখ্যা ভিন্ন হয়ে থাকে। প্রত্যেক মার্কেটের নিজস্ব ৩ থেকে ৫টি টয়লেট রয়েছে। কোন কোন মার্কেটে নীচতলাতে আবার কোন কোন মার্কেটে দ্বিতীয় তলাতে টয়লেটগুলো অবস্থিত। এখানে মহিলাদের জন্য টয়লেট ব্যবস্থা নেই।

জরুরী বিদ্যুৎ সরবরাহ: এখানে জরুরী বিদ্যূৎ সরবরাহ ব্যবস্থা রয়েছে। মার্কেটের নিজস্ব জেনারেটরের সাহায্যে লোডশেডিংয়ের সময় জরুরী বিদ্যূৎ সরবরাহ করা হয়। তবে কোন কোন মার্কেটের জেনারেটরে সুবিধা থাকে না। সেক্ষেত্রে দোকানগুলো তাদের প্রয়োজন মতো জেনারেটর কিনে বিদ্যূৎ সুবিধা পেয়ে থাকে।

শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা: মার্কেটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত নয়। মার্কেটের কিছু দোকানমালিক তাদের নিজস্ব প্রয়োজনে দোকানে এসি যুক্ত করে থাকেন।

নিরাপত্তা ব্যবস্থা: মার্কেটগুলোতে নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মী রয়েছে। তারা মার্কেটটি সর্বসময়, রুটিন অনুসারে পাহাড়া দিয়ে আসছে।

গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা: মার্কেটির গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য নিজস্ব পার্কিং স্পেস নেই। তবে সামনের রাস্তায় এবং ফুটপাতে গ্রাহক নিজ দায়িত্বে গাড়ি পার্ক করতে পারেন।

তথ্যসূত্র: ঢাকা অনলাইন গাইড।

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD