1. info@businessstdiobd.top : admin :
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ১০:১১ পূর্বাহ্ন

২০১৯ সালে বাজার মাতাবে যেসব কমদামি গাড়ি!

গাড়িপ্রেমীদের জন্য ২০১৮ ছিল বেশ ঘটনাবহুল বছর। ইলেক্ট্রিক কারের নতুন সংযোজন, কন্সেপ্ট কারের নতুন নতুন সব ডিজাইন, আর এর পাশাপাশি ফ্যামিলি কারের এক ঝাক নতুন মডেল। সব মিলিয়ে ২০১৮ সালটি গাড়ির বাজার বেশ মেতেই ছিল। এদের মধ্যে কিছু তুলনামূলক কমদামি গাড়ি সকলের নজর কেড়েছে। সেই গাড়িগুলো নতুন ভাবে পরিমার্জন ও সংশোধন করে আবারো বাজারে আসছে ২০১৯ সালে। এই কমদামী গাড়ি নিয়েই আজকের ব্লগ।

নিশান ভারসা নোট এস
নাম দেখে বিভ্রান্ত হবার কিছু নেই। এই গাড়িটি নিশান ভারসা সিডানের হ্যাচব্যাক ভার্শনের চাইতে বেশিকিছু না। নিশান সিডানের ইন্টেরিয়ার ও এক্সটেরিয়ার স্টাইলের উপরে দেয়া নোট নিয়েই এই নতুন সংস্করণ। নিশান নোটের ১০৯ এইচপি, ১.৬ লিটার ইনলাইন ফোর সিলিন্ডার ইঞ্জিন অনেকটা ভারসা সিডানের মতই। কিন্তু ভারসা সিডানে ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশন নেই।

এমনকি নোট এস ভার্শনে অটোম্যাটিক ভ্যারিয়েবল ট্রান্সমিশনের ব্যবস্থা রেখেছে। তবে দামের সাথে তুলনা করলে নোট এস ভার্শনে এমন এক্সক্লুসিভ কিছু নেই যার জন্য এই কমদামি গাড়ি নতুন নিশান ভার্সা নোট এস কিনতে পারেন। দামঃ $16,545

টয়োটা ইয়েরিস এল সিডান
এই গাড়িটি ইয়েরিস আইএ নামে পরিচিত। টয়োটা মাজদা-২ ভিত্তিক সাবকম্প্যাক্ট এই গাড়িটি ২০১৯ সালের জন্য ইয়েরিস এল সিডান হিসেবে নামকরণ করা হয়েছে। নাম পরিবর্তন করা হলেও গাড়ির মান আগের মতই বেশ ভালই থাকবে। যদিও পূর্বে মনোস্পেক হিসেবে গাড়িটি বাজারে আসলেও ২০১৯ সালে এর তিনটি সংস্করণ বাজারে থাকবে।

এই তিনটি সংস্করণ হচ্ছে এল, এলই, এক্সএলই। বেসিক এল ভার্শনের দাম আগের বছরের ইয়েসির আইএ থেকে কম হবে। সাথে যোগ হবে পাওয়ার উইন্ডো এবং মিরর, ৭ ইঞ্চি টাচ স্ক্রিন, পুশ বাটন স্টার্ট, রিমোট কি-লেস এন্ট্রি, অটোম্যাটিক ইমারজেন্সি ব্রেকিং এর মত অসাধারণ সব সুবিধা। গাড়িটির গতি হয়ত বাজারে গতির জন্য পরিচিত গাড়িগুলোর মত এত বেশি হবে না, কিন্তু কমদামি গাড়ি হিসেবে এটি চালাতে আসলেই বেশ আরাম এবং মজা পাওয়া যাবে। দামঃ $16,370

শেভরলে সনিক এলএস সিডান
২০১৯ এর সহজলভ্য গাড়ির মধ্যে সবচাইতে পাওয়ারফুল গাড়ি শেভরলে সনিক। ১.৮ লিটারের বড় ১৩৮ হর্স পাওয়ার সম্পন্ন ইঞ্জিনে ১২৫ পাউন্ড-ফুট টর্ক এই গাড়ির বিশেষ দিক। সনিক এল এস সিডানের ইঞ্জিনি ফাইভ স্পিড ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশনের সাথে যুক্ত। তবে সিক্স-স্পিড ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশনের জন্য খরচ হবে অতিরিক্ত ১৩০০ ডলার।

যদিও শেভরলে হ্যাচব্যাক সুবিধা একটু আপগ্রেড ভার্শনে দিচ্ছে, তাই হ্যাচব্যাক সহ এই গাড়িটি কিনতে হলে দাম আরো একটু বেড়ে যাবে। তবে এল এ সিডানে পাওয়ার ডোর লক, লেড রানিং লাইট ৭ ইঞ্চি টাচস্ক্রিন, এলটিই ফোর জি ডাটা কানেকশন, ওয়াইফাই সহ মোবাইলের সাথে কানেক্ট করার জন্য কার প্লে এবং এন্ড্রয়েড অটো ইন্ট্রিগ্রেশন রয়েছে। কমাদামি গাড়ি কিনলে এই গাড়িটি দেখতে পারেন। Price: $16,295

কিয়া রিও এলএস সিডান
২০১৯ সালের জন্য রিও সিডান ট্রিম লেভেলের একটু পরিবর্তন করেছে কিয়া কার কোম্পানি। গত বছরের ইএক্স ট্রিম বাদ দিয়ে এল এক্স ট্রিমের দাম কিছুটা বাড়িয়ে দিয়েছে কিয়া। দাম বাড়িয়ে দিলেও রিওর নতুন সিক্স পিড অটো ট্রান্সমিশনের কারণে সেটা উসুল হয়ে যাবে। আপনি যদি রিওর হ্যাচব্যাকের দিকে নজর দিয়ে থাকেন তাহলে মনে রাখবেন, এটর দাম সিডানের চাইতে কিছুটা বাড়তে পারে এবং মিড রেঞ্জের এস ট্রিমের সিডানে পাওয়া যাবে। দাম কিছুটা বাড়লেও কিয়া রিও এর গুনগত মান এবং ফিচারের দিক দিয়ে এগিয়েই থাকবে। দাম- $16,195

মিতসুবিশি মিরাজ ইএস
মিতশুবিশির মিরাজ জি ফোর সিডানের হ্যাচব্যাক ভার্শনটির দাম পড়বে নতুন বছরে ১০০০ ডলার কম। তবে নতুন বছরে এই গাড়ির মধ্যে তেমন কোন উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আসবে না। ফলে একটু কম দামে স্ট্যান্ডার্ড ক্রুজ কন্ট্রল, সিলভার ইন্টেরিয়ার এবং হাই এডজাস্টেবল ড্রাইভার সিটের সুবিধা পেতে মিতশুবিশি মিরাজ ই এস এর স্বপ্ন দেখা যেতেই পারে। মিরাজ ই এস এর হ্যাচ জি ফোর সিডানের চাইতে কিছুটা ভাল হবে। কমদামি গাড়ি হিসেবে মিতশুবশি যাদের প্রিয় তাদের জন্য এই গাড়িটি বাজারে আসবে। দাম- $14,690

শেভরলে স্পার্ক এলএস
শেভরলে ২০১৯ সালে ছোট হ্যাচব্যাককে নতুন ভাবে গাড়ির সাথে যুক্ত করে গাড়িকে নতুন একটু ফ্রন্ট লুক দেয়ার চেষ্টা করেছে এই স্পার্ক এল এস মডেলে। এর জন্য গাড়িটির দামে সামান্য একটু পরিবর্তন হয়ে ১৪০০০ ডলারে উঠেছে। যাইহোক, এই এল এস মডেলের গাড়িতে ডে-টাইম রানিং ল্যাম্প সুবিধা থাকছে যা আসলেই বেশ চমকপ্রদ। সাথে রয়েছে ১৫ ইঞ্চির চাকা। যদিও এই মডেল নিয়ে অনেকেই হাসিঠাট্টা করে থাকে, কিন্তু আসলেই এই মডেলটি অতটা খারাপ নয়।

এতে রয়েছে মোট ১০ টি এয়ারব্যাগ যা আপনাকে রাখবে বিপদমুক্ত। ৭ ইঞ্চি টাচ স্ক্রিন, ২ টা ইউএসবি পোর্ট, এপল কার প্লে এবং এন্ড্রয়েড অটো ইন্ট্রিগেশন গাড়িটিকে দিয়েছে একটি ভিন্নমাত্রা। ৯৮ হর্স পাওয়ারের ফোর সিলিন্ডার ইঞ্জিন এবং সাথে রয়েছে ফাইভ স্পিড ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশন। সব মিলিয়ে কমদামি গাড়ি নিয়ে করা তালিকায় এই গাড়িটি ২০১৯ সালে বেশ ভাল অবস্থানেই আছে। দাম- $14,095

নিশান ভারসা এস সিডান
২০১৯ সালের সবচাইতে সহজলভ্য গাড়ির তালিকায় সবার আগেই থাকবে নিশান ভারসা এস সিডান মডেলের গাড়িটি। নিশান ভারসা এস এর একটি ব্যাকআপ ক্যামেরা সহ ৭ ইঞ্চি টাচস্ক্রিন, এবং ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি এর একটি অন্যতম ফিচার। ব্যাক সিট এবং ট্রাঙ্ক বরাবরের মতই মানের দিক থেকে উপরের দিকেই থাকছে।

এস সিডানে থাকছে ফাইভ স্পিড হ্যাচব্যাক্ ট্রান্সমিশন। ১০৯ হর্স পাওয়ারের ১.৬ লিটার ফোর সিলিন্ডার ইঞ্জিন গাড়িকে দিবে দারুণ এক ক্ষমতা। নিশানের জন্য খুব একটা টাকা খরচ না করতে হলেও আপনি আপনার বাজেটের মধ্যে বেশ ভাল কিছুই পাবেন এই মডেলের গাড়িটি কিনলে। দামঃ $13,255

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Business Studio
Theme Developed BY Desig Host BD